চট্টগ্রাম বোর্ডে ফল পুনর্নিরীক্ষণের আবেদন ২৬৬২৩ শিক্ষার্থীর

চট্টগ্রাম বোর্ডে ফল পুনর্নিরীক্ষণের আবেদন ২৬৬২৩ শিক্ষার্থীর

নিজস্ব প্রতিবেদক : সম্প্রতি প্রকাশিত এসএসসি পরীক্ষার ফলাফল পুনর্নিরীক্ষণের জন্য চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে আবেদন করেছে ২৬ হাজার ৬২৩ শিক্ষার্থী। তারা বিভিন্ন বিষয়ের মোট ৭১ হাজার ১০৮টি উত্তরপত্র পুনর্নিরীক্ষণের আবেদন করে। রোববার (৬ আগস্ট) শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক নারায়ণ চন্দ্র নাথ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, এবার সবচেয়ে বেশি গণিত বিষয়ে ১০ হাজার ৫১৯টি উত্তরপত্র পুনর্নিরীক্ষণের আবেদন করে। এছাড়া বাংলা প্রথমপত্রে ৪ হাজার ৮৯১, বাংলা দ্বিতীয়পত্রে ৪ হাজার ৭১১, ইংরেজি প্রথমপত্রে ৮ হাজার ৭৬১, ইংরেজি দ্বিতীয়পত্রে ৮ হাজার ৪৮৬, ইসলাম ধর্মে ৪ হাজার ২৭১, উচ্চতর গণিতে ৩ হাজার ৫৫১, সাধারণ বিজ্ঞান ২ হাজার ২১৯, পদার্থবিজ্ঞান ৩ হাজার ৬০০, রসায়নবিজ্ঞান ৩ হাজার ২৯৫, জীববিজ্ঞান ৩ হাজার ৬২১, ব্যবসায় উদ্যোগ এক হাজার ২৮২, হিসাববিজ্ঞান ১ হাজার ৭৮৪, বাংলাদেশ ও বিশ্ব পরিচয় ৪ হাজার ৯৩৪, ফিন্যান্স ও ব্যাংকিং এক হাজার ৪৪, ভূগোল ৪৭০, হিন্দুধর্ম শিক্ষা ৭৬১, বৌদ্ধধর্ম শিক্ষা ১২৬, খ্রিস্টান ধর্ম শিক্ষা ৮টি, কৃষি শিক্ষা ৮৯৭টি, পৌরনীতি ও নাগরিকতা ৩৪৫, অর্থনীতি ৮৯, গার্হস্থ্য বিজ্ঞান ২৫৯, বাংলাদেশের ইতিহাস ও বিশ্বসভ্যতা ৩৯৩ এবং আইসিটি বিষয়ে ৭৯১টি উত্তরপত্র পুনর্নিরীক্ষণের আবেদন করে শিক্ষার্থীরা।

এর আগে গত ২৮ জুলাই চট্টগ্রামসহ সারা দেশের এসএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফলাফল ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত ফলাফলে চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ড থেকে মোট ১ লাখ ৫৩ হাজার ৩৮৩ উপস্থিত শিক্ষার্থীর মধ্যে পাস করে ৭৮ দশমিক ২৯ শতাংশ শিক্ষার্থী এবং জিপিএ -৫ পায় ১১ হাজার ৪৫০ শিক্ষার্থী।

ফলাফল বিশ্লেষণে দেখা যায়, চট্টগ্রামে এবার মোট উপস্থিত শিক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্রীর সংখ্যা ৮৫ হাজার ৪৯১ এবং ছাত্র সংখ্যা ৬৭ হাজার ৮৯২। এর মধ্যে ছাত্রীদের পাসের হার ৭৮ দশমিক ৭২ শতাংশ এবং ছাত্রদের হার ৭৭ দশমিক ৭৫ শতাংশ। এবার জিপিএ-৫ প্রাপ্ত ছাত্রীর সংখ্যা ৬ হাজার ৪৪৬ এবং ছাত্রের সংখ্যা ৫ হাজার ৪ জন।

 

চট্টগ্রামে এবার তিন বিভাগের মধ্যে বিজ্ঞানে পাসের হার সবচেয়ে বেশি। এই বিভাগে পাস করেছে ৯৬ দশমিক ৮১ শতাংশ পরীক্ষার্থী। এছাড়া ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ৯১ দশমিক ৩ এবং মানবিক বিভাগে ৭৮ দশমিক ৮২ শতাংশ শিক্ষার্থী পাস করেছে।

চট্টগ্রাম শিক্ষা বোর্ডে এবার ১ হাজার ১০৭ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা ২১৬ কেন্দ্রে পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে শতভাগ পাস করা বিদ্যালয়ের সংখ্যা ৪৫টি।

শিক্ষা বোর্ডের আওতাধীন কক্সবাজার জেলায় ৮৮ দশমিক ৪৫ শতাংশ, রাঙ্গামাটি জেলায় ৮১ দশমিক ৬, খাগড়াছড়ি জেলায় ৭৫ দশমিক ৮৭ এবং বান্দরবান জেলায় ৭৮ দশমিক ৩৬ শতাংশ। এছাড়া শুধুমাত্র চট্টগ্রাম মহানগর এলাকায় পাস করেছে ৯৪ দশমিক ৪১ শতাংশ এবং মহানগর বাদে জেলায় পাসের হার ৮৭ দশমিক ৬৪ শতাংশ শিক্ষার্থী।

More News...

যুবলীগ নেতাকে হত্যার দায়ে ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড, ৮ জনের যাবজ্জীবন

‘যৌন নিপীড়ক’ শিক্ষকের বিচার চান ঢাবি শিক্ষার্থীরা