বরিশালে পেট জোড়া লাগা যমজ শিশুর জন্ম

বরিশালে পেট জোড়া লাগা যমজ শিশুর জন্ম

বরিশাল ব্যুরো : বরিশালের গৌরনদীতে পেট জোড়া লাগানো যমজ শিশুর জন্ম হয়েছে। গত বুধবার গৌরনদীর বেসরকারি ময়ূরী ক্লিনিকে হালিমা বেগম নামে এক নারী মেয়ে শিশু দুটির জন্ম দেন। শিশু দুটিকে বরিশাল শেরেবাংলা চিকিৎসা মহাবিদ্যালয় (শেবাচিম) হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিতে বলা হয়। তবে অর্থাভাবে তা সম্ভব হয়নি।

বৃহস্পতিবার দুপুরে তাদের আবার গৌরনদীর ময়ূরী ক্লিনিকে নিয়ে গেছেন তার স্বজন।

শিশু দুটির বাবা আবু জাফর মুলাদী উপজেলার সেলিমপুর গ্রামের বাসিন্দা। তিনি ঢাকায় ভ্যান চালিয়ে জীবিকা নির্বাহ করেন। তিনি বলেন, চিকিৎসকরা নবজাতক দুটিকে দ্রুত ঢাকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল অথবা ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। তবে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে শিশু দুটি পৃথক করার জন্য বিপুল পরিমাণ অর্থ ব্যয়ের সামর্থ্য তার নেই। টাকা জোগাড় করে শনিবার ঢাকায় যেতে পারেন বলে জানান আবু জাফর। তিনি সন্তান দুটি বাঁচাতে হৃদয়বান ব্যক্তিদের কাছে আর্থিক সহায়তা চেয়েছেন।

শেবাচিম হাসপাতালের শিশু মেডিসিন বিভাগের অধ্যাপক ডা. উত্তম কুমার সাহা বৃহস্পতিবার দুপুরে জানান, হাসপাতালে থাকা অবস্থায় শিশু দুটিকে দেখে সুস্থ মনে হয়েছে। জন্ম-পরবর্তী ৪৮ ঘণ্টা অতিক্রম না হওয়া পর্যন্ত তাদের শারীরিক অবস্থার বিষয়ে নিশ্চিত করে কিছু বলা যাবে না। তিনি বলেন, শিশু দুটির পায়ুপথ ও যৌনাঙ্গ আলাদা। শুধু পেট জোড়া লাগানো। ৪৮ ঘণ্টা পর পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে বোঝা যাবে তাদের হূৎপিণ্ড বা শরীরের অন্য অঙ্গগুলো পৃথক আছে কিনা। এগুলো আলাদা থাকলে ঢাকায় নিয়ে অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে শিশু দুটি পৃথক করা সম্ভব হবে। তবে এজন্য প্রচুর অর্থের প্রয়োজন।

গৌরনদীর ময়ূরী ক্লিনিকের চিকিৎসক তানজিদ রহমান জানান, শিশু দুটির মা হালিমা বেগম বুধবার সকাল ১০টায় ক্লিনিকে ভর্তি হন। অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তাদের জন্ম হয়।

আবু জাফর-হালিমা বেগম দম্পতির ৬ ও ৪ বছরের আরও দুটি মেয়ে রয়েছে।

 

More News...

গজারিয়ায় উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বিধায়ী সংবর্ধনা

পাইকগাছায় মুক্তিযোদ্ধাদের নগদ সহায়তা প্রদান