লালমনিরহাটে মৌসুমের ২য় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড

লালমনিরহাটে মৌসুমের ২য় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড
লালমনিরহাট প্রতিনিধি : গ্রীষ্মের তীব্র দাবদাহে গোটা দেশের সাথে পুড়ছে উত্তরের সীমান্তবর্তী জেলা লালমনিরহাট।টানা কয়েকদিন থেকে দেখা নেই বৃষ্টির।সব মিলিয়ে বিপাকে পড়েছেন শিশু বয়স্ক সহ সকল বয়সের মানুষ।বিশেষ করে তীব্র রোদে মাঠে কাজ করা দিনমজুরদের কষ্ট চরমে। তবে, বোরো মৌসুমের ধান প্রায় শতভাগ ঘরে তোলায় স্বস্তি ফিরেছে এই অঞ্চলের কৃষকদের মধ্য। তীব্র দাবদাহে স্বস্তি ফেরাতে যখন বৃষ্টির অপেক্ষায় লালমনিরহাটের বাসীন্দারা তখনই বঙ্গপোসাগরে নিম্নচাপের ফলে সৃষ্ট ঘুর্ণিঝড়ের প্রভাবে হালকা থেকে ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া অফিস।
রাজারহাটের কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার জানায়, লালমনিরহাটের গতকালের(২৩ মে) সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৭ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস ছিলো যা ছিলো চলতি মৌসুমের সর্বোচ্চ। এবং গতকাল সর্বনিম্ন ২৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে।অপরদিকে আজকের (২৪ মে) সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয় এবং সর্বনিম্ন ২৩.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয় যা এই জেলার মৌসুমের ২য় সর্বোচ্চ।
জেলার আবহাওয়া পরিস্থিতি বিশ্লেষণ করে রাজারহাটের কৃষি আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুবল চন্দ্র সরকার জানান, বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘুর্ণিঝড় ইয়াসের প্রভাবে আগামী ২৫ মে রাতে অথবা ২৬ মে  সকাল থেকে আকাশ মেঘলা সহ হালকা থেকে মাঝারি আকারের দমকা হাওয়া ও বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।এক্ষেত্রে বাতাসের সর্বনিম্ন গতিবেগ প্রতি ঘন্টায় ৩০ কিলোমিটার এবং বাতাসের সর্বোচ্চ গতিবেগ প্রতি ঘন্টায় ৪০ কিলোমিটারের মধ্য থাকতে পারে।

More News...

বিড়ির শুল্ক প্রত্যাহারসহ চার দাবিতে পাবনায় মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

পাগলা মসজিদের দানবাক্সে পাওয়া গেল পৌনে ৮ কোটি টাকা