নগরবাসীর উপর আস্তা রেখেছি: মসিকের মেয়র প্রার্থী ইকরামুল হক টিটু

নগরবাসীর উপর আস্তা রেখেছি: মসিকের মেয়র প্রার্থী ইকরামুল হক টিটু

মাসুদ রানা, ময়মনসিংহ : ভোটারদের দুয়ারে দুয়ারে যাওয়ার চেষ্টা করছি, তাদের ব্যাপক সহযোগিতা ও সমর্থন পাচ্ছি। ভোটাররা দোয়া করছেন, আশীর্বাদ করছেন। আশা করছি আগামী ৯ তারিখ আমাদের সন্মানিত নাগরিকবৃন্দ আমাদের যে অসমাপ্ত কাজ এবং যে পরিকল্পনা গুলো করেছি, সেগুলো বাস্তবায়নের মাধ্যমে ময়মনসিংহকে একটি সমৃদ্ধ ময়মনসিংহ নগরী হিসেবে গড়ে তোলা যাবে। সেই আলোকে এবং তাদের সাথে দীর্ঘদিনের যে সুসম্পর্ক, যে উন্নয়নের পাশাপাশি সকল সময়ে সুখে দুঃখে তাদের পাশে থাকার চেষ্টা করেছি।

আশা করি আমাদের সম্মানিত ভোটারবৃন্দ সেগুলো মূল্যায়ন করে অসমাপ্ত কাজগুলো বাস্তবায়নের মাধ্যমে সমৃদ্ধ ময়মনসিংহ গড়ার লক্ষ্যে আগামী ৯ তারিখ টেবিল ঘড়ি মার্কায় ভোট দিয়ে আবারো আমাকে নগরবাসীর সেবা করার সুযোগ দান করবেন। পাশাপাশি আমি এটুকু আশ্বস্ত করতে চাই, উনাদের (ভোটারদের) দোয়ায় এবং সৃষ্টিকর্তা যদি আমাকে এ সুযোগ দান করেন, আমি আমার অবস্থান থেকে সর্বোচ্চ চেষ্টা করব যাতে করে সবাইকে নিয়ে ময়মনসিংহকে একটি সমৃদ্ধ ময়মনসিংহ গড়ে তোলা যায় আমি আমার অবস্থান থেকে এই কাজটুকু যথাযথ ভাবে করার চেষ্টা করব। বৃহস্পতিবার দুপুরে আসন্ন ৯ মার্চ ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন উপলক্ষে নগরীর ২৬ নং ওয়ার্ডের বিভিন্ন এলাকায় ভোটারদের দ্বারে দ্বারে গিয়ে গণসংযোগকালে এসব কথা বলেন মেয়র প্রার্থী ইকরামুল হক টিটু।

নতুন বর্ধিত ওয়ার্ডগুলো প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নতুন যে ১২ টি ওয়ার্ড যেগুলো সরাসরি ইউনিয়ন পরিষদ থেকে সিটি কর্পোরেশনের ভেতরে অন্তর্ভুক্ত হয়েছে, সেগুলোর জন্য আমরা প্রাথমিক পর্যায়ে কতগুলো রাস্তা দরকার, ড্রেন দরকার, সড়কবাতি প্রয়োজন আমরা এগুলো নির্ধারণ করে ইতিমধ্যে অনেকগুলো কাজ বাস্তবায়ন করেছি। বেশ কিছু কাজ চলমান রয়েছে, অনেকগুলো প্রক্রিয়াধীন আছে। আশা করছি, এই অসমাপ্ত কাজগুলো যখন সম্পন্ন হবে আমাদের এই বর্ধিত এলাকাসহ বিলুপ্ত পৌরসভার ২১ টি ওয়ার্ড অর্থাৎ ৩৩ টি ওয়ার্ডকেই যদি ধরি, তাহলে আমি মনে করি শতকরা ৭০/৮০ ভাগ সমস্যার ইনশাআল্লাহ সমাধান করা সম্ভব। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ এবং স্থানীয় এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ প্রমুখ।

More News...

বিড়ির শুল্ক প্রত্যাহারসহ চার দাবিতে পাবনায় মানববন্ধন ও স্মারকলিপি প্রদান

পাগলা মসজিদের দানবাক্সে পাওয়া গেল পৌনে ৮ কোটি টাকা