পাইকগাছায় সরকারি জায়গায় গড়ে উঠেছে অবৈধ দোকান-পাট

পাইকগাছায় সরকারি জায়গায় গড়ে উঠেছে অবৈধ দোকান-পাট
শাহাজামান বাদশা,পাইকগাছা (খুলনা) : খুলনার পাইকগাছা উপজেলা পরিষদের সরকারি জায়গায় গড়ে উঠেছে অবৈধ দোকান-পাট। আদালতের পাশেই স্মৃতিসৌধ এলাকার সীমানার মধ্যে এ ধরণের অবৈধ দোকান-পাট গড়ে ওঠায় সাধারণ মানুষের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। যদিও সরকারি জায়গায় এ ধরণের কোন অবৈধ স্থাপনা গড়ে ওঠার কোন সুযোগ নেই এবং প্রয়োজনে উচ্ছেদ করে অবৈধ স্থাপনা অপসারণ করা হবে বলে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন উপজেলা প্রশাসনের নির্বাহী কর্মকর্তা।
উল্লেখ্য, সম্প্রতি আদালত এলাকার জেলখানা রোডের পাশেই স্মৃতিসৌধের সীমানার মধ্যে উপজেলা পরিষদের সরকারি জায়গায় ৭ থেকে ৮টি অবৈধ দোকান ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। প্রতিটি দোকান স্বচল রয়েছে। প্রতিদিন তারা ওই দোকানে নিয়মিত ব্যবসা করছে। বেশিরভাগ দোকান চা স্টল হওয়ায় বিভিন্ন লোকের সমাগম ঘটছে দোকান গুলোতে। এতে একদিকে যেমন আদালত ও স্মৃতিসৌধের মূল সৌন্দর্য ম্লান হচ্ছে। পাশাপাশি এর পাশেই রয়েছে পাইকগাছা সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় ও পৌরসভা পরিচালিত আদর্শ শিশু বিদ্যালয়। যার ফলে স্কুলে যাওয়া আসার পথে বিব্রত বোধ করছে স্কুলের ছাত্রীরা। এছাড়া জনগুরুত্বপূর্ণ এ এলাকায় বহিরাগত লোকজনের আনাগোনা বৃদ্ধি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এতে নিরাপত্তা জনিত ঝুঁকিও দেখা দিতে পারে এমনটাই মনে করছেন সচেতন এলাকাবাসী। খোদ উপজেলা পরিষদের জায়গায় এমন অবৈধ স্থাপনা গড়ে ওঠায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন সাধারণ মানুষ।
দ্রুত এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদের দাবী জানিয়েছেন সচেতন মহল। এ ব্যাপারে জনৈক এক ব্যক্তির সহযোগিতায় দোকান ঘর তৈরী করেছেন বলে জানান ব্যবসায়ী অহেদুজ্জামান লিটন। মডেল মসজিদের রাস্তা পরিচ্ছন্ন রাখার জন্য অত্র স্থানে দোকান করেছেন বলে আরেকজন জন ব্যবসায়ী জানান। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুহাম্মদ আল-আমিন জানান, সরকারি কোন জায়গা দখল করে সেখানে অবৈধ স্থাপনা গড়ে তোলার কোন সুযোগ নেই। যদি কোথাও এ ধরণের অবৈধ স্থাপনা গড়ে ওঠে তাহলে প্রশাসনের পক্ষ থেকে সে সব স্থাপনা উচ্ছেদ করার মাধ্যমে অপসারণ করা হবে।

More News...

কার্ডিওলজিস্ট হওয়ার ইচ্ছে মেডিকেলে প্রথম হওয়া সর্বার

মেডিকেল ভর্তি পরীক্ষার ফল প্রকাশ, পাসের হার ৪৭.৮৩ শতাংশ