ভেঙে দেওয়া হচ্ছে নোয়াখালী জেলা আ. লীগের কমিটি

ভেঙে দেওয়া হচ্ছে নোয়াখালী জেলা আ. লীগের কমিটি

নিজস্ব প্রতিবেদক : নানান বিতর্কের মধ্যে অবশেষে নোয়াখালী জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান কমিটি ভেঙে আহ্বায়ক কমিটি গঠনের সিদ্ধান্ত নিয়েছে আওয়ামী লীগ। দলটির দায়িত্বপ্রাপ্ত একাধিক নেতা আজকের পত্রিকাকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক নেতা বলেন, ‘বর্তমান জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি খায়রুল আনাম চৌধুরী সেলিমকে আহ্বায়ক করে ৩০ সদস্যের আহ্বায়ক কমিটি শিগগিরই ঘোষণা করা হবে। দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’

বর্তমান সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী ওই আহ্বায়ক কমিটিতে থাকবেন কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কমিটি প্রকাশ করা হলে সেটা দেখা যাবে।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ৩০ অক্টোবর জেলা সম্মেলনের মাধ্যমে খায়রুল আনাম চৌধুরী সেলিমকে সভাপতি ও সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়। সম্মেলনের দুই বছরেও পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা সম্ভব হয়নি। জেলার দুই নেতা একটি খসড়া কমিটি জমা দিলে তা নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয়।

কোম্পানিগঞ্জের পৌর মেয়র ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা প্রায়ই জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরীর সমালোচনা করে থাকেন। তিনি একরামুল করিম চৌধুরীর সমালোচনা করে তাকে কমিটি থেকে বাদ দেওয়ার দাবি তোলেন। এসব নানান ইস্যুতে নোয়াখালীর রাজনীতি অস্থির হয়ে ওঠে। বেশ কয়েক দফায় দুপক্ষের মারামারির ঘটনাও ঘটে। এমনকি দুপক্ষের সংঘর্ষে প্রাণ হারিয়েছেন এক সাংবাদিকসহ দুজন। দাবি ওঠে একরামুল করিম চৌধুরীকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার।

একটি সূত্রে জানা গেছে, শুক্রবার আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের বৈঠকে আহ্বায়ক কমিটি করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় ৷ অভিযোগ ওঠায়, সাধারণ সম্পাদকের পদ থেকে একরামুল করিম চৌধুরীকে দলের দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। সেই বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

আওয়ামী লীগের নেতারা বলেন, আগামী কয়েক দিনের মধ্যে আহ্বায়ক কমিটি ঘোষণা করার মধ্য দিয়ে নোয়াখালীর রাজনৈতিক সংকট কাটিয়ে তোলা হবে।

More News...

কল ধরলেই তথ্য হ্যাক, বিষয়টি সঠিক নয়

‘সোনার চর’ হাউসফুল, উচ্ছ্বসিত জায়েদ খান