তাসকিনের সামনেই নিলয়ের স্ত্রীকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য!

তাসকিনের সামনেই নিলয়ের স্ত্রীকে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য!

বিনোদন ডেস্ক : সম্প্রতি দ্বিতীয় বিয়ে করে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে নেটিজেনদের ট্রলের শিকার হয়েছেন ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেতা নিলয় আলমগীর। এ নিয়ে বেশ অস্বস্তিতে পড়েছেন এই অভিনেতা। বিয়ের পরপরই স্ত্রীর সঙ্গে কক্সবাজার ঘুরতে গিয়েও আপত্তিকর মন্তব্যের শিকার হচ্ছেন বলে অভিযোগ তুলেছেন তিনি। তবে এবার নেটিজেনদের বিরুদ্ধে নয়, সরাসরি বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্রিকেটার ও তার বন্ধুদের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ তোলেন তিনি।

জিম্বাবুয়ে ও অস্ট্রেলিয়ার সঙ্গে দুই সিরিজ শেষে স্ত্রীকে নিয়ে ছুটিতে কক্সবাজার অবস্থান ক্রিকেটার তাসকিন আহমেদ। সম্প্রতি তিনি সায়মান বিচের সমুদ্রঘেঁষা সুইমিংপুলে স্ত্রীর সঙ্গে একটি ছবি শেয়ার করে আলোচনার জন্ম দিয়েছেন। একই জায়গায় স্ত্রীকে নিয়ে অবস্থান করছেন নিলয় আলমগীর। দু’জনের ফেসবুক ঠিক তাই বলে। যার কারণে নিলয়ের অভিযোগের পর ঘুরে ফিরেই তাসকিনের নাম নিচ্ছেন অনেকেই। পোস্টে তাসকিনের নাম উল্লেখ না করলেও ইঙ্গিত রয়েছে বেশ।

নিলয় আলমগীর তার অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে অভিযোগ ‍তুলে লিখেছেন, ‘একজন জাতীয় দলের ক্রিকেটারের পাশে দাঁড়িয়ে তার বন্ধুরা যখন আমার বউকে কমেন্ট পাস করে, “সেকেন্ড ওয়াইফ নাকি থার্ড” এবং সেই ক্রিকেটার কিছুই না বলে চুপচাপ শুনতে থাকে। তখন সাধারণ মানুষের ফেইসবুকের কমেন্টের দোষ ধরে লাভ নাই।’

বিয়ের প্রায় এক বছর হতেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছেলে সন্তানের বাবা হওয়ার খবর প্রকাশ করে আপত্তিকর মন্তব্যের মুখে পড়েছিলেন তাসকিন। সেই বিষয়কে ইঙ্গিত দিয়ে নিলয় আরও লিখেছেন, ‘এই ক্রিকেটার নিজেও কিন্তু তার বিয়ের সময় আজে বাজে কমেন্টসের শিকার হয়েছিলেন।’

এ বিষয়ে জানতে নিলয়ের মুঠোফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি। তবে তাসকিনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি দৈনিক আমাদের সময়কে বলেন, ‘আমরা কক্সবাজারে তিন দিন ছিলাম। এখন ঢাকায় ফিরেছি। ঘটনাটি আমাদের সামনে হয়নি। তারপরেও এমন কিছু হলে নিলয় আমাকে বলতে পারতো। সেও আমায় কিছু জানায়নি। তবে আমি তার পোস্ট পড়েছি, মনে হচ্ছে পুরোটাই আমাকে ইঙ্গিত করা হয়েছে।আমি ওর সঙ্গে কথা বলার চেষ্টার করতেছি।’

উল্লেখ্য, তাসকিন সন্তানের জন্মের খবর জানিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখে ফেসবুকে সেই সময় লিখেছিলেন, ‘সবার উদ্দেশে ১টা কথা বলি, কেও মনে কিছু নিয়েন্না, আমার বিয়ে হইসে ১১ মাস. দক্ষিণ আফ্রিকা সিরিজ থেকে এসেই বিয়ে করলাম ৩১ অক্টোবর এবং বিয়ের বয়স হলো ১১ মাস, সাউথ আফ্রিকা ছিলাম ৪৮ দিন, সব মিলিয়ে হল ১২ মাস ১৮ দিন. আমার পুত্র সন্তান হইলো ৯ মাস ২৭ দিনে.. জদি বিয়ের আগে আমার স্ত্রী প্রেগন্যান্ট হইতো তা হলে আমার বাচ্চা বিয়ের ৬ মাস এর মদ্দেই দুনিয়াতে থাকতো..যাই হোক যাদের ভুল ধারণা ছিল আমাদের প্রতি তাদের জন্যে এই মেসেজটি,, ধন্নবাদ..।’

More News...

স্থগিত করা খেলা হবে, মামলাও চলবে

পদ্মকে নিয়ে আবেগঘন পোস্ট পরীমনির