পদযাত্রাকে মরণযাত্রা কাদেরের মন্তব্যকে ‘অদ্ভুত’ বললেন ফখরুল 

পদযাত্রাকে মরণযাত্রা কাদেরের মন্তব্যকে ‘অদ্ভুত’ বললেন ফখরুল 

নিজস্ব প্রতিবেদক : আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ।
১০ দফা দাবিতে বিএনপির পদযাত্রা কর্মসূচিকে মরণযাত্রা বলে মন্তব্য করায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সমালোচনা করেছেন মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘অদ্ভুত! এ ধরনের কথাবার্তা বলে জনগণকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে। এগুলো জনগণের সঙ্গে তামাশা ছাড়া আর কিছুই নয়।শনিবার (২৮ জানুয়ারি) বিকেলে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) ‘বহুদলীয় গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। ‘জাতীয়তাবাদী সমমনা জোট’ এ সভার আয়োজন করে।
ওবায়দুল কাদেরের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘আমাদের অধিকার আপনারা কেড়ে নিয়েছেন। দুইবার ভোটের অধিকার থেকে বঞ্চিত করেছেন। জনগণের বেঁচে থাকার ন্যূনতম অধিকারটুকুও কেড়ে নিয়েছেন। মানুষের পকেট কেটে আপনারা বড়লোক হচ্ছেন, আর সেই টাকা বিদেশে পাচার করছেন।’
শুধু সভা করে, কথা বলে এ সরকারের হাত থেকে রক্ষা মিলবে না মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘মূল কথা হচ্ছে- অনেক হয়েছে, এবার বিদায় হও। জনগণের রক্ত শোষণ করে খেয়েছেন, এবার বিদায় হও। পদত্যাগ করুন, পদত্যাগ করে সংসদকে বিলুপ্ত করুন। নির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন। তত্ত্বাবধায়ক সরকার নতুন কমিশন গঠন করবে। তাদের অধীনে জাতীয় নির্বাচন হবে। সেই নির্বাচনে জনগণ তাদের প্রতিনিধি নির্বাচন করবে।’বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘বাংলাদেশের মানুষ সবচেয়ে বেশি স্বাধীনচেতা, সবচেয়ে বেশি দেশপ্রেমিক। ১৯৭১ সালে জিয়াউর রহমানের ঘোষণার মধ্যদিয়ে তারা যুদ্ধ শুরু করেছিলেন। পরবর্তীসময়ে ১৯৯০ সালে স্বৈরাচার এরশাদের হাত থেকে গণতন্ত্র রক্ষা করেছিলেন বেগম খালেদা জিয়া। আবার ফ্যাসিবাদকে হটানোর জন্য সামগ্রিক লড়াই শুরু হয়েছে। এ লড়াই শুধু বিএনপির লড়াই নয়, এটা বিরোধী দলেরও নয়, এটা জনগণের লড়াই।’
তিনি বলেন, ‘আজকে জনগণের সব অধিকার কেড়ে নেওয়া হয়েছে। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে রাস্তায় নেমে এ সরকারের পতন ঘটিয়ে দেশ ও জাতিকে রক্ষা করতে হবে।’
এনপিপি চেয়ারম্যান ফরিদুজ্জামান ফরহাদের সভাপতিত্বে ও মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফার সঞ্চালনায় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন জাগপা সভাপতি খন্দকার লুৎফর রহমান, বিকল্পধারার চেয়ারম্যান নুরুল আমিন, সাম্যবাদী দলের চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম, গণদলের চেয়ারম্যান এ টি এম গোলাম মাওলা চৌধুরী, মাইনরিটি পার্টির সুকৃতি মণ্ডল, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান আজহারুল ইসলাম, বাংলাদেশ ন্যাপের চেয়ারম্যান শাওন সাদেকী, এনপিপি প্রেসিডিয়াম সদস্য বেলাল হোসেন, নবী চৌধুরী, মো. ফরিদ উদ্দিন প্রমুখ।

More News...

জাতীয় প্রেসক্লাবে বিড়ি শ্রমিকদের সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন

কৃষকদের টাকা দিলে ফেরত দেয়, কোটিপতিরা দেয় না’