বুধবার ঢাকাসহ সারাদেশে ‘প্রতিবাদী মানববন্ধন’ বিএনপির

বুধবার ঢাকাসহ সারাদেশে ‘প্রতিবাদী মানববন্ধন’ বিএনপির

নিজস্ব প্রতিবেদক : আগামীকাল বুধবার ঢাকাসহ সারাদেশে ‘প্রতিবাদী মানববন্ধন’ কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বিএনপি। ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি নির্বাচনের বর্ষপূর্তি উপলক্ষে মঙ্গলবার দুপুরে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী এই কর্মসূচি ঘোষণা দেন।

রিজভী বলেন, সকাল ১১ টায় জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে ঢাকায় এবং জেলা শহর গুলোতে এই কর্মসূচি পালন করা হবে।

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগকে গণতন্ত্র হত্যার নিষ্ঠুর কসাই উল্লেখ করে রিজভী বলেন, আট বছর আগে ২০১৪সালের ৫ জানুয়ারি সারাদেশে ভোটার ও বিরোধী দলের প্রার্থী বিহীন একতরফা, বিতর্কিত প্রতারণামূলক ও হাস্যকর শতাব্দীর শ্রেষ্ঠ প্রহসনমূলক একদলীয় পাতানো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। দেশ-বিদেশে প্রত্যাখ্যাত জনধিকৃত একদলীয় নির্বাচন করতে গিয়ে আওয়ামী লীগ আবারও সারা দুনিয়ায় নিজেদের হেয় প্রতিপন্ন করে। আজ্ঞাবহ নির্বাচন কমিশন আইন শৃঙ্খলা বাহিনী ও দলীয় সন্ত্রাসীদের দিয়ে গণহত্যা খুন গুম নির্যাতন চালিয়ে তাদের কাছ থেকে ন্যূনতম আদায় করতে পারেনি আওয়ামীলীগ। সারাদেশে নির্বাচনী কেন্দ্রগুলোতে ছিল একদম ফাঁকা। অধিকাংশ ভোট কেন্দ্রে ছিল ভোটারশূন্য এবং কেন্দ্রগুলোতে ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে চতুষ্পদ প্রাণীর বিচারক দেখেছে বিশ্ববাসী। বর্তমানে ভোটাধিকার হরণের দুষ্কর্মের টাটকা প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে নির্বাচন কমিশন।

রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের গতকাল বলেছেন বিএনপির সমাবেশে বাধা দিচ্ছে না সরকার। যদি সরকার বাধা দিত তাহলে বিএনপির জনসভা বেশি এত লোক আসলো কিভাবে? ওবায়দুল কাদের সাহেবের কাছে প্রশ্ন সিরাজগঞ্জে বিএনপির সমাবেশে অস্ত্র হাতে যারা হামলা করেছে তারা কারা? গণমাধ্যমে খবর বেরিয়েছে এরা সবাই যুবলীগের কর্মী। এরা তো সবাই যুবলীগের । তারা এখনো ধরা পড়ছে না কেন? পটুয়াখালীতে বিএনপির সমাবেশে ছাত্রলীগ ও যুবলীগ হামলা অনেককে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে, গুলি করে অনেককে আহত করেছে এরা কারা? গাজীপুরে সমাবেশে বাধা দেয়া হয়েছিল কেন? বাগেরহাটে ছাত্র দলের সমাবেশে বাধা দিয়েছিল কেন? শান্তিপূর্ণ সমাবেশ করার অপরাধে বিভিন্ন জেলায় হাজার হাজার নেতাকর্মীর নামে মামলা হচ্ছে কেন? ওবায়দুল কাদের সাহেবের কাছে সব প্রশ্নের জবাব চাচ্ছি ।

তিনি বলেন, ক্ষমতাসীনদের হরেক কিসিমের প্রতারকরা জনগণকে ক্রমাগত প্রতারণা করে চলছে। আমি কাদের সাহেবকে পরিষ্কার করে বলে দিতে চাই, কর্তৃত্ববাদী হিংস্র শাসন ব্যবস্থার বিরুদ্ধে দেশের মানুষ কঠিন সংগ্রামে অঙ্গীকারাবদ্ধ। বোঝার বিভিন্ন সরকারের দিন শেষ। ভোট ডাকাতির দিন শেষ। বাংলাদেশের জনগণ তাদের অধিকার প্রতিষ্ঠায় রাজপথে নেমে গেছে। বিশ্ব বিবেক জেগে উঠেছে। গণতন্ত্রের জয় অবশ্যম্ভাবী।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুল সালাম, আবুল খায়ের ভূঁইয়া, স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফত আলী সপু, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

More News...

জাতীয় প্রেসক্লাবে বিড়ি শ্রমিকদের সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন

কৃষকদের টাকা দিলে ফেরত দেয়, কোটিপতিরা দেয় না’