বছরজুড়ে যশোরের আলোচিত ঘটনা

বছরজুড়ে যশোরের আলোচিত ঘটনা

হাফিজুর শেখ হাফিজুর, যশোর : নানা অঘটন-ঘটনায় বিদায় নিচ্ছে ২০২১ সাল। বিদায়ী বছরে যশোরের বেশকিছু ঘটনা জেলার গণ্ডি পেরিয়ে জাতীয় পর্যায়েও আলোচিত হয়েছে। নেট দুনিয়ায় তোলপাড় সৃষ্টির পাশাপাশি ঝড় তুলেছে চায়ের কাপেও। বিদায়ী বছরে যশোরের এমন কিছু ঘটনা তুলে ধরা হলো।

১,শিক্ষাবোর্ডের সাত কোটি টাকা আত্মসাত
চেক জালিয়াতির মাধ্যমে যশোর শিক্ষাবোর্ডের প্রায় সাত কোটি টাকা আত্মসাতের ঘটনা জানাজানি হলে দেশজুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। গত ২৩ নভেম্বর জালিয়াতির অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনে (দুদক) মামলা হলে ওএসডি করা হয় যশোর শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মোল্লা আমীর হোসেন ও সচিব এ এম এইচ আলী আর রেজাকে। এর আগে অক্টোবরে চেক জালিয়াতির মাধ্যমে টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুদক সমন্বিত জেলা কার্যালয় যশোরের সহকারী পরিচালক মাহফুজ ইকবাল বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলার আসামিরা হলেন, যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মোল্লা আমীর হোসেন, সচিব এ এম এইচ আলী আর রেজা, হিসাব সহকারী আবদুস সালাম, ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ভেনাস প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিংয়ের মালিক শরিফুল ইসলামসহ পাঁচজন।

২,হাসপাতাল থেকে করোনা রোগীর পলায়ন
যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতাল থেকে ২৪ ও ২৫ এপ্রিল দশ করোনা রোগী কর্তৃপক্ষকে না জানিয়েই বাড়ি চলে যায়। এদের মধ্যে সাতজন ছিলেন ভারতফেরত করোনা পজিটিভ রোগী। রোগী পালিয়ে যাওয়ার বিষয়টি জানাজানি হলে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। পরে তাদের আবারও হাসপাতালে ফিরিয়ে আনা হয়। পাশাপাশি তাদের বিরুদ্ধে নেয়া হয় আইনগত পদক্ষেপও।

৩,পুলিশ হেফাজতে আ’লীগ নেতাকে নির্যাতন
১১ জানুয়ারি যশোর কেন্দ্রীয় শহিদ মিনার এলাকায় পুলিশ সদস্যকে মারপিটের ঘটনায় আটক হন যশোর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এস এম মাহমুদ হাসান বিপু। ১৯ ঘণ্টা পর পুলিশি হেফাজত থেকে মুক্ত হয়ে যশোর জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। এরপর হাসপাতালে থেকেই পুলিশি নির্যাতনের বর্ণনা দেন। এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশ হলে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। এ ঘটনার জেরে তৎকালীন পুলিশ সুপার আশরাফ হোসেনকে বদলি করা হয়। গঠিত হয় একাধিক তদন্ত কমিটিও।

প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্যের বক্তব্যে তোলপাড়
গত ২৯ সেপ্টেম্বর যশোরের মণিরামপুর উপজেলা পরিষদের বটতলা প্রাঙ্গণে তথ্য অধিকার দিবসের অনুষ্ঠানে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, ‘আমি সংসদ সদস্য, আমি মন্ত্রী। সরকারি মিল্ক ভিটা ফ্যাক্টরি করব বলে আমার ছেলের নামে একটি জমির দলিল করতে পাঠাইছিলাম। রেজিস্ট্রি অফিসে দুর্নীতির একটি রেট আছে। ওই রেট অনুযায়ী ঘুষের টাকা না দিলে জমি রেজিস্ট্রি হয়নি। এক সপ্তাহ আগের কথা। আমি লজ্জায় এ কথা কারও কাছে বলিনি। তার এই বক্তব্যে তোলপাড় হয়।’

৬ শিক্ষার্থীর মৃত্যু
১১ ফেব্রুয়ারি ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার বারোবাজারে যশোর থেকে মাগুরাগামী জিকে পরিবহনের একটি বাসের সঙ্গে বিপরীত দিক থেকে আসা ট্রাকের সংঘর্ষ হয়। এতে ঘটনাস্থলে ৩ ও পরে তিনজন মারা যান। নিহতো সবাই যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন (এমএম) কলেজের মাস্টার্সের পরীক্ষার্থী ছিলেন। ছয় শিক্ষার্থীর মৃত্যুতে ক্যাম্পাসে শোকের ছায়া নেমে আসে।

ফাঁসি কার্যকর ও আপিল নিষ্পত্তি বিতর্ক
২০১৭ সালের ১৬ নভেম্বর যশোর কেন্দ্রীয় কারাগারে চুয়াডাঙ্গার মুক্তিযোদ্ধা মনোয়ার মেম্বার হত্যা মামলায় দুই আসামি মোকিম ও ঝড়ুর ফাঁসি কার্যকর হয়েছিল। গত ৩ নভেম্বর গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদে বলা হয়, আপিল নিষ্পত্তির আগেই তাদের ফাঁসি কার্যকর হয়েছে। এ নিয়ে সারাদেশে তোলপাড় হয়। পরে উচ্চ আদালতের সিদ্ধান্তে এ বিতর্কের অবসান ঘটে।

More News...

জাতীয় প্রেসক্লাবে বিড়ি শ্রমিকদের সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন

কৃষকদের টাকা দিলে ফেরত দেয়, কোটিপতিরা দেয় না’