চার দিনে ছয় প্রদেশ দখল তালেবানের, কী বলছে যুক্তরাষ্ট্র?

চার দিনে ছয় প্রদেশ দখল তালেবানের, কী বলছে যুক্তরাষ্ট্র?

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : আফগানিস্তানকে রক্ষা করা দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর দায়িত্ব বলে মন্তব্য করেছে যুক্তরাষ্ট্র। তালেবান চার দিনে আফগানিস্তানের ছয় প্রদেশের রাজধানী দখলে নেওয়ার পরিপ্রেক্ষিতে নিজেদের এ অবস্থান জানিয়েছে দেশটি।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের (পেন্টাগন) মুখপাত্র জন কিরবি সোমবার বলেন, তালেবানের একের পর এক প্রাদেশিক রাজধানীর নিয়ন্ত্রণ নেওয়াতে যুক্তরাষ্ট্র গভীরভাবে উদ্বিগ্ন কিন্তু বিদ্রোহী এই গোষ্ঠীটির সঙ্গে আফগানিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীর লড়াই করার ক্ষমতা আছে বলে মনে করে যুক্তরাষ্ট্র।

এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, এরা তাদের সামরিক বাহিনী, এগুলো তাদের প্রাদেশিক রাজধানী, তাদের জনগণকে তাদেরই রক্ষা করতে হবে, এই বিশেষ মূহুর্তে এই অবস্থা থেকে তারা বের হয়ে আসতে ইচ্ছুক কিনা তা তাদের নেতৃত্বের ওপর নির্ভর করছে।

আফগানিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীগুলো লড়াই চালিয়ে যেতে না পারলে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনীর কি করতে পারে, এমন প্রশ্নে কিরবি বলেন, ‘বেশি কিছু করার নেই।’

এদিকে তালেবানের ‘সামরিক আক্রমণ রুখতে চাপ দেওয়ার জন্য’ কাতার যাচ্ছেন যুক্তরাষ্ট্রের আফগানিস্তানবিষয়ক দূত জালমাই খালিলজাদ।

চলতি সপ্তাহে কাতারের দোহায় অনুষ্ঠেয় আলোচনায় জালমাই খালিলজাদ ‘তালেবানকে তাদের সামরিক আক্রমণ বন্ধ করতে চাপ দেবেন’ বলে সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টমেন্ট অব স্টেট জানিয়েছে।

এর আগে সোমবার তালেবান ঘোষণা দিয়েছে, তারা চার দিনে আফগানিস্তানের ছয়টি প্রদেশের রাজধানী দখল নিতে সক্ষম হয়েছে। একই সঙ্গে দেশের আরও বহু এলাকার দখল নিতে নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে লড়ছেন তারা।

দীর্ঘ ২০ বছর পর আফগানিস্তান থেকে সেনা প্রত্যাহার করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। আগস্টেই প্রত্যাহার প্রক্রিয়া শেষ করবে দেশটি। এর মধ্যেই তালেবান দেশের প্রায় অর্ধেকের বেশি জেলার দখল নিয়ে নিয়েছে।

More News...

জাতীয় প্রেসক্লাবে বিড়ি শ্রমিকদের সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন

কৃষকদের টাকা দিলে ফেরত দেয়, কোটিপতিরা দেয় না’