তুরস্কে ভয়ংকর আগুনের মধ্যেও জীবিত ‘ছাগল ছানা’

তুরস্কে ভয়ংকর আগুনের মধ্যেও জীবিত ‘ছাগল ছানা’

অনলাইন ডেস্ক : তুরস্কের বিভিন্ন স্থানে দাবানলের আগুন জ্বলছে। এতে এখন পর্যন্ত চারজনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। কিন্তু লেলিহান এই অগ্নিকাণ্ডের মধ্যে একটি অলৌকিক ঘটনা ঘটেছে। আগুন লাগার ২-৩ ঘণ্টা পরেও একটি ছাগল ছানাকে জীবিত উদ্ধার করা হয়েছে।

ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ তুরস্কের আনাতোলিয়ার মানাভগাতের একটি খামারে।

তুরস্কের জনপ্রিয় সংবাদমাধ্যম ডেইলি সাবাহর খবরে বলা হয়েছে, আগুন যখন কৃষক ‘সারকান বায়াতের’ গ্রামে আঘাত হানে তখন তিনি তার গরুগুলোকে আগুন থেকে বাঁচতে দৌড় দেওয়ার জন্য চিৎকার করেন। ভয়াবহ আগুনে চোখের সামনে প্রিয় প্রাণীগুলো পুড়ে মারা ছিল-৩০ বছর বয়সী বায়াতের জীবনে সবচেয়ে ভয়ংকর মুহূর্ত।

আগুনে কৃষক সারকান বায়াত ৮টি প্রাণী হারালেও তিনি দেখতে পান, অসহায় অবস্থায় সদ্য জন্ম নেওয়া একটি ছাগল ছানা পড়ে আছে। গর্ভধারিণী ছাগলটি আগুনে মারা গেলেও ছানাটি নিঃশ্বাস নিচ্ছিল।

বায়াত বলেন, আগুন নিভে যাওয়ার দুই-তিন ঘণ্টা পর ছানাটিকে আমি ভূমিতে পড়ে থাকতে দেখি। আমরা ছানাটির নাম দিয়েছি ‘মিরাকল’ (অলৌকিক ঘটনা)।

ছাগল ছানাটির মালিক আরও বলেন, বুনো আগুনে আমরা আরেকটি ছাগলকে জীবিত পেয়েছি। তার একটি ছানা রয়েছে। সেটি আমাদের দ্বিতীয় বিস্ময়।

তুরস্কের এই কৃষক বলেন, দক্ষিণ তুরস্কের আনাতোলিয়ার মানাভগাতে তার খামার ক্ষতিগ্রস্ত হলেও ছাগলের বাচ্চাটি জীবিত পেয়ে তিনি মহাখুশি।

তুরস্কের দাবানলের বিষয়ে আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, চলতি সপ্তাহে তুরস্কের আজিয়ান এবং ভূমধ্যসাগরীয় ১৭টি প্রদেশের প্রায় ১০০টি জায়গায় দাবানল ছড়িয়ে পড়েছে। দাবানলের কারণে বিভিন্ন এলাকার তাপামাত্রা বেড়ে গেছে। ডজনখানেক গ্রাম এবং বেশ কিছু হোটেল থেকে লোকজনকে নিরাপদে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

তুর্কি কর্তৃপক্ষ বলছে, শুক্রবার সকালের মধ্যে প্রায় ৫৭টি দাবানলের আগুন নিয়ন্ত্রণ সম্ভব হয়েছে বা পুরোপুরি নিভিয়ে ফেলা গেছে। তবে বনমন্ত্রী বেকির পাকডেমিরলি বলেন, ওসমানিয়া, কায়সেরি, কোকাইলি, আদানা, মেরসিন এবং কুতাহইয়া এলাকায় এখনও দাবানলের আগুন জ্বলছে।

More News...

রাইসির প্রতি জাতিসংঘের শ্রদ্ধা অনুষ্ঠান বয়কট যুক্তরাষ্ট্রের!

কোন ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে ইরানে হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল?