আড়ি পাতা হয় খাসোগির স্ত্রী ও বাগদত্তার ফোনে

আড়ি পাতা হয় খাসোগির স্ত্রী ও বাগদত্তার ফোনে

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে হত্যার আগে ও পরে তার ঘনিষ্ঠজনদের মুঠোফোনে আড়ি পাতা হয়েছিল। গোপনে এ কাজ করার জন্য ব্যবহার করা হয়েছিল ইসরায়েলের প্রতিষ্ঠান এনএসও গ্রুপের তৈরি পেগাসাস নামের সফটওয়্যার। ডিজিটাল ফরেনসিক বিশ্লেষণে এসব তথ্য জানা গেছে।

ডিজিটাল ফরেনসিক বিশ্লেষণে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, খাসোগির স্ত্রী হানান এলাতার ও তার বাগদত্তা হেতিজে চেঙ্গিসের ফোনে আড়ি পাতা হয়েছিল। এর পাশাপাশি খাসোগি হত্যায় সংশ্লিষ্ট শীর্ষ দুই তুর্কি কর্মকর্তার ফোনেও আড়ি পাতা হয়েছিল।

লন্ডনভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের পরীক্ষাগারে। এ তদন্তের জন্য ৬৭টি মুঠোফোনের তথ্য বিশ্লেষণ করা হয়েছে।

সাংবাদিক জামাল খাসোগিকে ২০১৮ সালের ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলে সৌদি আরবের কনস্যুলেটের ভেতরে হত্যা করা হয়। তবে তার মরদেহের হদিস আজও মেলেনি।

সৌদি আরবের শাসকগোষ্ঠীর কঠোর সমালোচক হিসেবে পরিচিত ছিলেন জামাল খাসোগি। তাকে হত্যায় সৌদি যুবরাজ মোহাম্মদ বিন সালমানের সম্পৃক্ততার অভিযোগ ওঠে। বিভিন্ন তদন্তে এ হত্যাকাণ্ডের নির্দেশদাতা হিসেবে সৌদি যুবরাজের নামও এসেছে। যদি সৌদি কর্তৃপক্ষ বরাবরই এ ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করে আসছে।

প্রসঙ্গত, ব্রিটিশ দৈনিক গার্ডিয়ানসহ ১৭টি সংবাদপত্র অনুসন্ধানে বিশ্বজুড়ে মানবাধিকারকর্মী, সাংবাদিক, আইনজীবী, রাজনীতিকদের ফোনে আড়িপাতার এক ঘটনা ফাঁস হয়েছে। ইসরায়েলে তৈরি হ্যাকিং সফটঅয়্যার পেগাসাস ব্যবহার করে কর্তৃত্ববাদী সরকারগুলো এই নজরদারি চালাচ্ছিল বলে অভিযোগ উঠেছে।

ফাঁস হওয়া একটি ডেটাবেইসে এই ফোন নম্বরগুলো প্রথমে পায় প্যারিসভিত্তিক সংস্থা ফরবিডেন স্টোরিজ ও অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল, পরে তারা গার্ডিয়ান, দ্য অয়্যারসহ ১৭টি সংবাদ মাধ্যমকে তা জানায়। তারা সবাই মিলে এই অনুসন্ধানের নাম দিয়েছে ‘পেগাসাস প্রজেক্ট’। সূত্র-ওয়াশিংটন পোস্ট

More News...

জাতীয় প্রেসক্লাবে বিড়ি শ্রমিকদের সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন

রাইসির প্রতি জাতিসংঘের শ্রদ্ধা অনুষ্ঠান বয়কট যুক্তরাষ্ট্রের!