তালেবানের হামলায় এক সপ্তাহে নিহত ২৯

তালেবানের হামলায় এক সপ্তাহে নিহত ২৯
আন্তর্জাতিক ডেস্ক :  আফগানিস্তানের উত্তরাঞ্চলীয় প্রদেশ কুনদুজে তালেবানের হামলায় গত এক সপ্তাহে অন্তত ২৯ বেসামরিক লোক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও ২২৫ জন। যদিও প্রাদেশিক প্রশাসনের দাবি, গত তিন দিন ধরে অনেকটা কমে এসেছে সহিংসতা।

কুনদুজ প্রশাসনের দাবি, প্রদেশের ৯টি জেলার মধ্যে অধিকাংশই এখন তাদের নিয়ন্ত্রণে। শনিবার তালেবানের দখলে থাকা দুটি জেলা নিজেদের নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে প্রশাসন। এছাড়া শুক্রবার পুনদখল করা হয়েছে আরও ছয়টি জেলা। যদিও তালেবান বলছে এখনও প্রদেশটির কেন্দ্রের চারটি জেলা তাদের দখলে রয়েছে।

আফগানিস্তানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের দাবি, গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটির মোট ১০টি প্রদেশে ২২৫ জন তালেবান নিহত হয়েছে। যদিও তালেবানের পক্ষ থেকে নিজেদের হতাহতের বিষয়ে কিছু বলা হয়নি।

শনিবার রাতে পারওয়ান প্রদেশে তালেবানকে লক্ষ্য করে বিমান হামলা চালিয়েছে আফগানিস্তান প্রশাসন। যাতে কমপক্ষে ২০ জন তালেবান নিহত হয়েছে বলে দাবি করছে পারওয়ানের গভর্নর ফজলুদ্দিন আয়ার সাইদ।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রুহুল্লা আহমাদজাই বলেন, আফগানিস্তানের নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যরা সাহসের সাথে তালেবানের সঙ্গে লড়াই করে যাচ্ছেন। যাতে পিছু হঠতে শুরু করেছে তালেবান সন্ত্রাসীরা। গত দুই মাসে আফগানিস্তানের কমপক্ষে ১শ’টি জেলা দখলে নেয় তালেবান। যা উদ্ধারে লড়াই করছে নিরাপত্তা বাহিনী।

বৈঠক শেষে জো বাইডেন জানিয়েছন, আফগানিস্তান থেকে সৈন্য প্রত্যাহার করা হলেও দেশটিতে সহায়তা অব্যাহত রাখবে যুক্তরাষ্ট্র। বাইডেন বলেন, যুক্তরাষ্ট্র এবং আফগানিস্তানের মধ্যকার অংশীদারিত্ব শেষ হচ্ছে না। এটি স্থায়ী হতে চলেছে। আপনারা জানেন আমাদের সৈন্যরা আফগানিস্তান ছেড়ে আসছে, তবে আমাদের সহযোগিতা শেষ হচ্ছে না।

চলতি বছরের ১ মে থেকে আফগানিস্তান হতে আনুষ্ঠানিকভাবে সেনা প্রত্যাহার শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির দাবি এখন পর্যন্ত নিজেদের ৫০ শতাংশের বেশি সেনা প্রত্যাহার করা হয়েছে। আগামী ১১ সেপ্টেম্বরের মধ্যে বাকি সেনা প্রত্যাহারের ঘোষণা দিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন।

যদিও আফগানিস্তান থেকে নিজেদের সেনা প্রত্যাহার সিদ্ধান্তে কিছুটা পরিবর্তন আনতে চাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। সাধারণ মানুষ ও কূটনৈতিক নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে এমন সিদ্ধান্ত নিচ্ছে দেশটি। নাম প্রকাশ না করা মার্কিন এক কর্মকর্তার বরাত দিয়ে ২৪ জুন এমন তথ্য জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এপি। যেখানে বলা হয় কমপক্ষে ৬৫০ জন মার্কিন সেনা আরও কিছুদিন আফগানিস্তানে অবস্থান করবে।

যদিও আফগানিস্তানে মার্কিন সেনা থেকে যাওয়ার বিষয়টির কড়া সমালোচনা করেছে তালেবান। তালেবান জানায়, ১১ সেপ্টেম্বরের পর যদি আফগানিস্তানে মার্কিন সৈন্য থাকে সেক্ষেত্রে তাদেরও প্রতিক্রিয়া জানোনোর অধিকার রয়েছে। এছাড়া বাইডেনের সঙ্গে ঘানি-আবদুল্লাহর ২৫ জুনের বৈঠককে নিস্ফল বলে উল্লেখ করেছে তালেবান।

২০১১ সাল থেকে চলা যুদ্ধ-সংঘাতে এখন পর্যন্ত ৬৪ হাজারের বেশি আফগান সেনা ও পুলিশ নিহত হয়েছেন। প্রাণ হারিয়েছে ৪০ হাজারের বেশি সাধারণ মানুষ। নিহত হয়েছে প্রায় সাড়ে তিন হাজার বিদেশি সেনা।

More News...

দক্ষিণ কোরিয়ায় জন্মহার ইতিহাসে সর্বনিম্ন

ইরানে জোড়া বোমা হামলায় নিহত ৭৩