গেইলদের দলে ফিরিয়ে পোলার্ড : যা-ই করি না কেন, সমালোচনা হবেই

গেইলদের দলে ফিরিয়ে পোলার্ড : যা-ই করি না কেন, সমালোচনা হবেই
স্পোর্টস ডেস্ক : দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে টেস্ট সিরিজে হোয়াইটওয়াশ হওয়ার পর, টি-টোয়েন্টি সিরিজে দারুণভাবে ঘুরে দাঁড়িয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথমটিতে ৮ উইকেটের বড় ব্যবধানে জিতেছে ক্যারিবীয়রা, তাও কি না পাঁচ ওভার হাতে রেখেই।

দলের নায়ক বাঁহাতি ওপেনার এভিন লুইস। প্রোটিয়াদের করা ১৬০ রানের জবাবে দলকে উড়ন্ত সূচনা এনে দিয়েছিলেন লুইস। ইনিংসের ১২তম ওভারে যখন আউট হন তখন দলের সংগ্রহ ২ উইকেটে ১২৪ রান আর তার নামের পাশে ৪ চার ও ৭ ছয়ের মারে ৩৫ বলে ৭১ রানের ইনিংস।

তবে ম্যাচটি শুরুর আগেই বেশি বয়সী খেলোয়াড়দের নিয়ে দল সাজানোয় প্রশ্নের মুখে পড়তে হয়েছে ক্যারিবীয় অধিনায়ক কাইরন পোলার্ডকে। প্রথম দুই ম্যাচের জন্য ঘোষিত ১৩ সদস্যের স্কোয়াডের গড় বয়স প্রায় ৩২ বছর। যেখানে রয়েছেন ক্রিস গেইল (৪১), ফিদেল এডওয়ার্ডস (৩৯), ডোয়াইন ব্রাভো (৩৭), লেন্ডল সিমনস (৩৬) এবং পোলার্ড নিজেই ৩৪ বছর বয়সী।

তাই প্রশ্ন চলেই আসছে, এখন এত বয়স্কদের নিয়ে দল সাজিয়ে রাখলে, ভবিষ্যতের জন্য তরুণদের প্রস্তুত করা হবে কীভাবে? এর জবাবে পোলার্ড জানিয়েছেন, দল যেটাই করুক না কেন, সমালোচনা হবেই। তবে তার দল সেরা ফল পাওয়ার জন্য সম্ভাব্য সবকিছুই করবে।

পোলার্ডের ভাষ্য, ‘আমরা সবসময়ই সমালোচনা শুনি। এটা পরিষ্কার। আপনি যদি যুক্তিগত দিক থেকে ধরেন এবং শুধুমাত্র তরুণ খেলোয়াড়দের নিয়ে দল সাজান, তখনও নানান আওয়াজ শুনতে পাবেন। অর্থাৎ যা-ই করি না কেন, সমালোচনা হবেই।’

এসময় গেইল-ব্রাভোদের মতো অভিজ্ঞদের দলে রাখার ব্যাখায় ক্যারিবীয় অধিনায়ক বলেন, ‘এসব খেলোয়াড়রা যদি দলের সম্পদ হতে পারে, তাহলে তাদের বাকি থাকা সামর্থ্যটা আমরা কেন ব্যবহার করব না? তারা যখন সারা বিশ্বে লিগ খেলে বেড়ায়, তখন বলা হয় এরা জাতীয় দলে খেলে না কেন? এখন তারা খেলছে।’

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সবশেষ দুই আসরেই চ্যাম্পিয়ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ। চলতি বছর হতে যাওয়া বিশ্বকাপেও ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে চান দলের বর্তমান অধিনায়ক পোলার্ড। সেজন্যই মূলত ভাণ্ডারে থাকা সকল অস্ত্র ব্যবহার করার পরিকল্পনা সাজিয়েছেন ক্যারিবীয় অধিনায়ক।

More News...

তানজিদের দুর্দান্ত সেঞ্চুরি, বড় রান চট্টগ্রামের

জিশান-আরিফুলের ফিফটিতে বাংলাদেশের বড় জয়