সব বিদেশগামী কর্মীকে টিকা দিতে হবে

সব বিদেশগামী কর্মীকে টিকা দিতে হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক : সব বিদেশগামী কর্মীকে করোনা টিকার আওতায় আনতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হস্তক্ষেপ চেয়েছেন ফিমেল ওয়ার্কার রিক্রুটিং এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ফোয়াব)। প্রবাসীদের জন্য জরুরিভিত্তিতে ৫০ হাজার ডোজ টিকা বরাদ্দ এবং নিয়োগকারী দেশগুলো যে টিকা চেয়ে অনুমোদন দিয়েছে, কর্মীদের দেশভেদে সেই টিকা দেওয়ার দাবি জানিয়েছে সংগঠনটি।

সোমবার ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সংবাদ সম্মেলনে ফোয়াব নেতারা আরও বলেছেন, বিমানের টিকিটের দাম বেড়েছে। আবার কর্মীদের বিদেশে কর্মস্থলে যোগ দেওয়ার আগে প্রাতিষ্ঠানিক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে। এত ব্যয় বহন করা কর্মীদের জন্য অসম্ভব। কোয়ারেন্টাইন এড়ানোর একমাত্র উপায় দেশ ছাড়ার আগে দুই ডোজ টিকা নেওয়া।

ফোরাব মহাসচিব মোহাম্মদ মহিউদ্দিন বলেন, করোনা মহামারিকালে প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স অর্থনীতিকে চাঙ্গা রেখেছে। অনেকেই করোনাকালে ছুটিতে দেশে এসে আটকা পড়েছেন। নতুন কর্মীও যাচ্ছেন। রেমিট্যান্সের অর্জন ধরে রাখতে হলে অন্যান্য দেশের সঙ্গে তাল মিলিয়ে টিকা দিতে হবে। টিকা স্বল্পতার কারণে সরকার শুধু ৪০ বছরের বেশি বয়সীদের প্রতিষেধকটি দিচ্ছে। কিন্তু বিদেশগামী কর্মীরা সাধারণত ২১ থেকে ৪০ বছর বয়সী হয়ে থাকেন।

লিখিত বক্তব্যে বলা হয়, সৌদিগামী কর্মীদের উচ্চ দামে বিমানের টিকিট কিনেও আবার ব্যয়বহুল হোটেলে সাত দিন বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হচ্ছে। সরকার ২৫ হাজার টাকা করে ভর্তুকি দিলেও কর্মীদের বাড়তি আরও লাখখানেক টাকা লাগছে, যা জোগাড়ে তাদের হিমশিম খেতে হচ্ছে। অভিবাসন ব্যয় বৃদ্ধির ফলে বিপর্যয় সৃষ্টি হতে পারে। অথচ কর্মীদের টিকা নেওয়া থাকলে তাদের বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনে থাকতে হবে। অভিবাসন ব্যয় কমবে। করোনার টিকার দুই ডোজের মধ্যে এক মাস বিরতি রয়েছে। এটা প্রবাসী কর্মীদের জন্য অনেক লম্বা সময়। এ সময় কমিয়ে আনতে হবে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন ফোয়াব সভাপতি আবদুল হালিম, সিনিয়র সহসভাপতি কে এম মোবারক উল্লাহ শিমুল, বায়রার সাবেক যুগ্ম মহাসচিব আবুল বাশার প্রমুখ।

More News...

আমরাও সার্টিফিকেট পুড়িয়ে সরকারি চাকরি পেতে চাই’

যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্কোন্নয়নে বড় বাধা রাশেদ চৌধুরীকে ফেরত না দেওয়া’