ভোজ্যতেলের দাম নিয়ে ক্ষুব্ধ ক্রেতারা

ভোজ্যতেলের দাম নিয়ে ক্ষুব্ধ ক্রেতারা

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর মগবাজারের বাসিন্দা রেজাউল হক গত সপ্তাহেও এক লিটার সয়াবিন তেল কিনেছেন ১৪২ টাকা দরে। শুক্রবার বাজার করতে এসে দেখেন একই ব্র্যান্ডের সয়াবিন তেল বিক্রি হচ্ছে ১৪৮ টাকায়। কিছু কম হবে কি না জানতে চাইলে দোকানদার জানিয়ে দেন, ১৫৩ টাকার তেল ১৪৮ টাকায় বিক্রি করছি। এইটাই ডিসকাউন্ট। আর কম হবে না।

আন্তর্জাতিক বাজারে উচ্চমূল্য ও ভ্যাটের অস্থির ভোজ্যতেলের বাজার। গত চার মাসে পণ্যটির দাম চার দফা বেড়েছে। বৃহস্পতিবার সবশেষ বোতলজাত সয়াবিন তেলে লিটারপ্রতি ১৩ টাকা বাড়িয়ে ১৫৩ টাকা করা হয়েছে। লিটারপ্রতি খোলা সয়াবিন তেলের দাম ১০ টাকা বেড়ে নতুন দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ১২৯ টাকা।

তবে বোতলজাত সয়াবিন তেলে যে দাম লেখা আছে সেই দামেই পণ্য বিক্রি করার বাধ্যবাধকতা রয়েছে। ক্রেতাদের অভিযোগ ব্যবসায়ীরা তা মানছে না।

রাজধানীর উত্তরার বাসিন্দা মাসুম বিল্লাহ দেশ রূপান্তরকে বলেন, ‘বোতলে দাম লেখা ১৪৪ টাকা। কিন্তু দাম রাখল ১৫০ টাকা। বলে দাম বেড়েছে। দাম যদি বাড়েও তাহলে সেটা তো নতুন বোতলে হবে। আর করোনায় মানুষ এমনিতেই ঠিকমতো চলতে পারে না। প্রায় সব পণ্যের দাম বাড়তি। এদিকে মাসে মাসে তেলের দাম বাড়ে। সয়াবিন তেল থেকে ভ্যাট উঠিয়ে নিলে তো কোন সমস্যা নাই। তাহলে তো কিছুটা দামে পাওয়া যেত।

গত সপ্তাহে রাজধানীর বাজারে পেঁয়াজের দাম কিছুটা বাড়তি ছিল। তবে এই সপ্তাহে তার পরিবর্তন ঘটেছে। বাজারে কেজিপ্রতি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৪০ টাকা দরে। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে ঘূর্ণিঝড় ইয়াস কিছুটা আঘাত হেনেছিল। কিন্তু বাজরে এর তেমন কোনো প্রভাব পড়েনি। বাজারে কেজিপ্রতি বেগুন বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা, পটল ৪০ টাকা, ঢ্যাঁড়স ৪০-৫০ টাকা। মৌসুম শেষ হওয়ায় কিছুটা বেড়েছে ফুলকপি-বাঁধাকপির দাম, প্রতিটি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা। বাজারে বরবটি ৬০-৭০ টাকা, গাজর ৮০-১০০ টাকা, পাকা টমেটো ৪০-৫০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।

বাজারে কিছুটা বেড়েছে ব্রয়লার মুরগির দাম। এত দিন কেজিপ্রতি ব্রয়লার ১৩০-১৩৫ টাকায় বিক্রি হলেও এখন ১৪০-১৫০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। তবে অপরিবর্তিত আছে ফার্মের মুরগির ডিমের দাম। প্রতি হালি বিক্রি হচ্ছে ৩২ টাকা দরে। এ ছাড়া প্রতি কেজি গরুর মাংস ৫৫০-৬০০ টাকা ও খাসির মাংস ৮০০ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে।

More News...

কল ধরলেই তথ্য হ্যাক, বিষয়টি সঠিক নয়

‘সোনার চর’ হাউসফুল, উচ্ছ্বসিত জায়েদ খান