দূরপাল্লার বাসেও ৬০ ভাগ বাড়তি ভাড়া

দূরপাল্লার বাসেও ৬০ ভাগ বাড়তি ভাড়া

নিজস্ব প্রতিবেদক : করোনা সংক্রমণ রোধের লকডাউনে দেড় মাসেও বেশি সময় বন্ধ থাকার পর সোমবার থেকে চালু হতে যাচ্ছে দূরপাল্লার বাস। স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মানতে বাসের আসন সংখ্যার অর্ধেক যাত্রী পরিবহন করা যাবে। এ জন্য দূরপাল্লার বাসেও ৬০ শতাংশ বেশি ভাড়া দিতে হবে যাত্রীদের।

রোববার বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি সাংগঠনিক চিঠিতে সব জেলার বাস মালিকদের এ নির্দেশনা দিয়েছে। দূরপাল্লার বাস চলাচলের অনুমতি দিয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ প্রজ্ঞাপন জারির কয়েক ঘণ্টা পর এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

এতে বলা হয়েছে, সরকার নির্ধারিত শর্তে ও স্বাস্থ্যবিধি বাস চালাতে হবে। মাস্ক ছাড়া কোনো যাত্রী উঠানো যাবে না। চালক, কন্ডাক্টর, হেলপার, টিকিট বিক্রিতে নিয়োজিত ব্যক্তিকে মাস্ক পরতে হবে। টিকিট কাউন্টারে সামাজিক দুরত্ব মানতে হবে।

গত মার্চে করোনা সংক্রমণের হার বৃদ্ধি পাওয়ার পর গণপরিবহনে অর্ধেক আসন খালি রাখার নির্দেশ দেয় সরকার। এ কারণে গত ৩০ মার্চ বাসে ভাড়া ৬০ শতাংশ বৃদ্ধি করে সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)। এ ভাড়া কার্যকরের পরপরই দূরপাল্লার বাস বন্ধ হয়ে যায়। তবে দেড় মাসের লকডাউনে কয়েক দফায় চালু হওয়া নগর পরিবহনে ৬০ শতাংশ বর্ধিত ভাড়া নেওয়া হচ্ছে।

মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ স্বাক্ষরিত নির্দেশনায় বলা হয়েছে, বিদ্যমান ভাড়ার ৬০ শতাংশ অতিরিক্ত আদায় করা যাবে। এ হিসাবে কোনো পথে সরকার নির্ধারিত ভাড়া ১০০ টাকা হলে, অর্ধেক আসন খালি রাখার কারণে ১৬০ টাকা নেওয়া যাবে। ঢাকা-ময়মনসিংহ রুটে ৪০ আসনের বাসে সরকার নির্ধারিত ভাড়া ২১৫ টাকা। অর্ধেক আসন খালি রেখে বাস চলায়, সোমবার থেকে যাত্রীপ্রতি ৩৫০ টাকা ভাড়া দিতে হবে।

সোমবার থেকে দুরপাল্লার বাস চলাচলে অনুমতি দেওয়া হলেও রোববার রাত থেকে অনেক পরিবহন চলতে শুরু করেছে। ঈদের আগে থেকেই রাতের বেলায় চাঁদা দিয়ে দূরপাল্লার বাস সব আসনে যাত্রী বোঝাই করে চলছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

ঢাকা-নোয়াখালী রুটের ‘হিমাচল পরিবহন’র ব্যবস্থাপনা পরিচালক আফতাব উদ্দিন মাসুদ সমকালকে বলেছেন, তার কোম্পানির বাস ধুয়ে মুছে সোমবার থেকে চলবে। তবে অনেক বাস ইতিমধ্যে চালু হয়ে গেছে।

More News...

জাতীয় প্রেসক্লাবে বিড়ি শ্রমিকদের সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন

কৃষকদের টাকা দিলে ফেরত দেয়, কোটিপতিরা দেয় না’