ভারতে ‘কালো ছত্রাক’কে মহামারি ঘোষণা

ভারতে ‘কালো ছত্রাক’কে মহামারি ঘোষণা

অনলাইন ডেস্ক : মিউকরমাইকোসিস বা কালো ছত্রাককে মহামারি হিসেবে ঘোষণা করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার। সব রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে একে মহামারি ঘোষণার নির্দেশ দিয়ছে ভারত সরকার। করোনা আক্রান্তদের মধ্য এই রোগের প্রাদুর্ভাব বেড়েছে।

দ্য হিন্দুর খবরে বলা হয়, ভারতের কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব লাভ আগারওয়াল স্বাক্ষরিত চিঠিতে বলা হয়, মিউকরমাইকোসিসকে মহামারি ঘোষণা করতে সমস্ত রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলগুলোতে চিঠি পাঠিয়েছে। মহামারি ঘোষণার ফলে এ রোগ প্রতিরোধে সরকারের পক্ষ থেকে তড়িৎ ব্যবস্থা নেয়ার প্রয়োজনিয়তা দেখা দেবে।

মহামারি আইন ১৮৯৭ এর অধীনে ভারতে কোনো রোগ উদ্বেগজনক পর্যায়ে গেলে তাকে মহামারি হিসেবে ঘোষণা করা যেতে পারে। আইনটি সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে বিশেষ ক্ষমতা দেয় যা রোগের বিস্তার ঠেকাতে নিয়ন্ত্রণমূলক ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য প্রয়োজন। আইন অনুযায়ী, সমস্ত সরকারি ও বেসরকারি স্বাস্থ্য কেন্দ্র ও মেডিকেল কলেজগুলো নির্দিষ্ট রোগের চিকিৎসায় কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও ইন্ডিয়ান কাউন্সিল অফ মেডিক্যাল রিসার্চ (আইসিএমআর) এর জারি করা গাইডলাইন অনুসরণ করবে।

আগারওয়াল বলেন, ‘এই ছত্রাকের সংক্রমণ কোভিড-১৯ রোগীদের মধ্যে দীর্ঘস্থায়ী অসুস্থতার কারণ, এটি তাদেরকে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়।’

বুধবার রাজস্থানে কালো ছত্রাকের সংক্রমণ মারাত্মকভাবে বেড়ে যাওয়ায় রাজ্য সরকার এটিকে মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে। গত ১৮ মে হরিয়ানা সরকারও এটিকে মহামারি হিসেবে ঘোষণা করে। এখন পর্যন্ত কর্ণাটক, উত্তরাখণ্ড, তেলেঙ্গানা, মধ্য প্রদেশ, অন্ধ্র প্রদেশ, হরিয়ানা ও বিহারসহ ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে কালো ছত্রাকের সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

মিউকরমাইকোসিস বা কালো ছত্রাক খুবই বিরল একটি সংক্রমণ। মাটি, গাছপালা, সার, পচতে থাকা ফল ও সবজিতে থাকা মিউকর মোল্ডের সংস্পর্শে এলে এ রোগে সংক্রমিত হওয়ার আশঙ্কা থাকে। চিকিৎসকরা জানান, এই কালো ছত্রাক আক্রান্তের সাইনাস, মস্তিষ্ক ও ফুসফুসের ক্ষতি করে। অনেক ক্ষেত্রেই আক্রান্ত ব্যক্তির অঙ্গহানি এমনকি মৃত্যুও হয়।

More News...

ইরানে জোড়া বোমা হামলায় নিহত ৭৩

২০২৪ সালে প্রতিশোধের হুঁশিয়ারি জেলেনস্কির