কোম্পানীগঞ্জে প্রবাসীর বসতঘরে হামলা, ককটেল বিস্ফোরণ, ভাংচুর, লুটপাট থানায় মামলা

কোম্পানীগঞ্জে প্রবাসীর বসতঘরে হামলা, ককটেল বিস্ফোরণ, ভাংচুর, লুটপাট থানায় মামলা

কোম্পানীগঞ্জ (নোয়াখালী) প্রতিনিধি :  নোয়াখালী কোম্পানীগঞ্জ উপজেলায় সিরাজপুর ইউনিয়নে ১নং ওয়ার্ডের মোহাম্মদনগর গ্রামে কালার মা হাজী বাড়িতে প্রবাসীর বসত ঘরে হামলা, ককটেল বিস্ফোরণ, ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটেছে।

প্রবাসী আবুল হাশেমের স্ত্রী বিবি জুলেখা বেগম জানান, গত দুই বছর যাবত প্রতিপক্ষের সাথে আমাদের সম্পত্তিগত বিরোধ চলে আসছে। আমার স্বামী ও ছেলে বিদেশ থাকার সুযোগে প্রতিপক্ষের আক্রোশের শিকার নেমে আসে আমার পরিবারের ওপর।

আমি সপরিবারে সোমবার সকালে আমার মেয়ের স্বামীর বাড়ি চৌধুরীহাটে পরিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষ্যে বেড়াতে যাই। এই সুযোগে সোমবার রাতে একই বাড়ির পাশ্ববর্তী ঘরের গোলাম রাব্বানী ও তার চাচা গিয়াস উদ্দিনের নেতৃত্বে একদল মুখোশধারী সন্ত্রাসী আমার বসত ঘরের সামনে ব্যাপক ককটেল বিস্ফোরনের ঘটনা ঘটায়। আমার ঘরের টিনের বেড়া, দরজা ও জানালা ধারালো দা, কিরিচ ও দেশীয় অস্ত্র দিয়ে এলোপাতাড়ি কোপায় এবং ঘর তছনছ করে দেয়। ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে ঢুকে আমার আলমারির তালা ভেঙ্গে ১১ ভরি স্বর্ণালংকার নগদ ৮০হাজার টাকা এবং গুরুত্বপূর্ণ কাগজ ও সম্পত্তির দলিলপত্র লুট করে নিয়ে যায়।

জুলেখা বেগম বলেন, এ সহিংসতার ঘটনায় বুধবার সকালে গোলাম রাব্বানীকে প্রধান আসামী করে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাত ২০-২৫জনকে আসামী করে কোম্পানীগঞ্জ থানায় মামলা দায়ের করেছি।
প্রবাসীর স্ত্রী জুলেখা বেগম ও তার পরিবারের সদস্যরা প্রাণ ভয়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছে।

স্থানীয় সিরাজপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার জামাল উদ্দিন বলেন, আমরা ঘটনাস্থলে গিয়েছি। বসতঘরে হামলা, ঘরের টিনের বেড়া, দরজা জানালা কেটে ফেলা ও লুটপাটের প্রমাণ পাওয়া গেছে।

কোম্পানীগঞ্জ থানার ওসি মীর জাহেদুল হক রনি জানান, থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। দোষীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

More News...

বিড়ির শুল্ক ও অগ্রিম আয়কর প্রত্যাহারের দাবিতে রংপুরে জনসভা

বিড়ি শিল্পের শুল্ক প্রত্যাহারসহ পাঁচ দাবিতে বগুড়ায় মানববন্ধন