শিমুলিয়া-বাংলাবাজার রুটে চলছে ১৪ ফেরি, নেই যাত্রীদের গাঁদাগাদি

শিমুলিয়া-বাংলাবাজার রুটে চলছে ১৪ ফেরি, নেই যাত্রীদের গাঁদাগাদি

নিজস্ব প্রতিবেদক : গত কয়েকদিন শিমুলিয়া-বাংলাবাজার রুটে ঈদে ঘরমুখো যাত্রীদের উপচে পড়া ভিড় দেখা গেলেও আজ মঙ্গলবার দেখা যাচ্ছে তার উল্টো চিত্র। গত কয়েকদিনে যে ভিড়ে দেখা গেছে, আজ তার ছিটেফোঁটাও নেই। যাত্রী সংখ্যা হাতে গোনার মতো, তবে রয়েছে তিন শতাধিক পণ্যবাহী গাড়ির সারি।

আজ সকাল থেকে এই রুটে ১৪টি ফেরি চলাচল করছে। যে কারণে নিয়মিত ফেরি চলাচল করায় যাত্রীদের ভিড় কমে গেছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, ভোর থেকে ঘাটে নিয়মিত ফেরি ভিড়ছে। মালবোঝাই ট্রাক, পিকআপ ভ্যান ও ব্যক্তিগত গাড়ি নিয়ে একের পর এক ফেরি ছেড়ে যাচ্ছে। নিয়মিত ফেরি চলায় নির্বিঘ্নে পদ্মা পাড়ি দিতে পেরে খুশি দক্ষিণবঙ্গের যাত্রীরা।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষাবাহিনী শিমুলিয়া ঘাটের প্রবেশ মুখে নিজস্ব অবস্থানে আছে। ব্যারিকেড দিয়ে রাখা হয়েছে ঘাট থেকে প্রায় ১ কিলোমিটার দূরে রাস্তার ওপর। যাত্রবাহী কোনো পরিবহন ঘাটে ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে না। ফলে এই ১ কি.মি রাস্তা যাত্রীদের হেঁটে আসতে হচ্ছে।

ফেরিতে গণপরিবহন, প্রাইভেট কার যেতে না দেওয়ায় অ্যাম্বুলেন্স, লাশবাহী গাড়ি, জরুরি কোনো পরিবহনের সঙ্গে যাত্রীরা পারাপার হচ্ছে। অন্যান্য দিনের মতো গাঁদাগাদি না থাকায় আজ যাত্রীরা বেশ স্বস্তি নিয়ে পারাপার হচ্ছেন।

মাওয়া ট্রাফিক পুলিশের টিআই হিলাল উদ্দিন বলেন, এ মুহূর্তে ঘাটে ১৪টি ফেরি চলছে। ফেরি চলাচল স্বাভাবিক হওয়ায় ঘাটে মানুষের কোনো জটলা নেই। ঘাটে ব্যক্তিগত কোনো পরিবহনও নেই। তবে ৩ শতাধিক মালবাহী ট্রাক ও পিকআপ ভ্যান রয়েছে।

More News...

বিড়ি শিল্পের শুল্ক প্রত্যাহারসহ পাঁচ দাবিতে বগুড়ায় মানববন্ধন

কুষ্টিয়ায় নকল আকিজ বিড়িসহ বিড়ি তৈরির উপকরণ জব্দ