পরিবারের জন্য কাজে লেগে পড়েছে নেহামনি

পরিবারের জন্য কাজে লেগে পড়েছে নেহামনি

পরেশ গুপ্ত, ফুলবাড়ী (দিনাজপুর) প্রতিনিধি : দিনাজপুরের ফুলবাড়ী উপজেলার সদর থেকে কাঁথাওড়া সড়ক দিয়ে মাদিলাহাট যাওয়ার পথে সৈয়দপুর এলাকায় চোখে পড়ে -একটি শিশু চা-পানের দোকানে দোকানদারী করছে। ক্রেতাদের চা বানিয়ে খাওয়াচ্ছে। কথা বলে জানা যায়, তার নাম নাদিয়া আক্তার নেহামনি। কানাইকুঁড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্রী সে। বিদ্যালয় বন্ধ থাকায় প্রায় এক বছর ধরে সে এ কাজে জড়িয়েছে।
দোকানে ক্রেতাদের জন্য চা তৈরির করছিল, সেখানে মা ইনসান আরাও বসেছিলেন। নিম্ন আয়ের পরিবারের মেয়ে নেহামনি পিতা নিজাম উদ্দিন অন্যত্র মজুরী দিতে যাওয়ায় সে তার পিতার দোকানের হাল ধরে বেচাবিক্রি করছে। নেহামনি যেখানে চা তৈরি করে বিক্রি করছিল, তার পিছনেই তার বাড়ী।
নাদিয়া আক্তার নেহামনি জানায়, তৃতীয় শ্রেণিতে পড়ার সময়ই স্কুল বন্ধ হয়ে যায়। এরপর পরীক্ষা না দিয়েই সে চতুর্থ শ্রেণিতে উঠে গেছে। চতুর্থ শ্রেণিতে উঠলেও তাকে এখন পর্যন্ত কোন ক্লাস করতে হয়নি। তার পিতা নিজাম উদ্দিন একজন দিনমজুর। নিজের কোন জমিজমা নেই। মজুরী দিয়ে তাদের সংসার চলে। এর ফাঁকে বাড়ীর সামনে একটি চালাবেড়া দিয়ে চালু করেছে চা-পানের দোকান। তারা দুই বোন। বড়বোন নাজমুন আক্তারের বিয়ে হয়ে গেছে। বাড়ীতে বাবা-মা’র সাথে বসবাস নেহামনির। স্কুল বন্ধ থাকায়, পিতা যখন মজুরী দিতে অন্যত্র চলে যান, তখন নেহামনিই ওই দোকানে চা-পান বানিয়ে বেচাবিক্রি করে থাকছে। এতে সারাদিনে ১০০ থেকে ১৫০ টাকা আয় হয় তাদের।
নাদিয়া আক্তার নেহামনির মা ইনসান আরা বলেন, ‘যদি স্কুল খুলে যায়, তখন স্কুলের টাইমে নেহামনি স্কুল করবে। আর স্কুল শেষে দোকান চালাবে। নেহামনি দোকান চালায় বলে সংসারে একটু বেশি আয় হচ্ছে।
নাদিয়া আক্তার নেহামনির পিতা নিজাম উদ্দিন বলেন, বড়মেয়ের বিয়ের পর একাই নেহামনি বাড়ীতে থাকে। স্কুল বন্ধ থাকায় আমি মজুরী দিতে অন্য জায়গায় গেলেও নেহামনি দোকানটা ভালোভাবেই চালিয়ে নিচ্ছে। এতে বাড়তি কিছু আয় সংসারের কাজে লাগছে। স্কুল খুললে আবার সে স্কুলে যাবে। শুধুমাত্র দুই মেয়ে হওয়ায় নেহামনি এখন ছেলেমেয়ে দু’টোই আমাদের কাছে। ওকে নিয়ে অনেক স্বপ্ন। লেখাপড়া শিখিয়ে মানুষের মতো মানুষ করা। যাতে বয়বৃদ্ধকালে আমাদের পাশে থাকে।

More News...

যুবলীগ নেতাকে হত্যার দায়ে ১০ জনের মৃত্যুদণ্ড, ৮ জনের যাবজ্জীবন

নগরবাসীর উপর আস্তা রেখেছি: মসিকের মেয়র প্রার্থী ইকরামুল হক টিটু